ব্রণ নিরাময়ে অ্যালোভেরা | যা ব্রণ দূর করার সাথে সাথে আপনার ত্বককে উজ্জ্বল করবে

0
108
aloe vera for acne

ব্রণ নিরাময়ে অ্যালোভেরা জেলের কিছু ব্যবহার জেনে নেই। যা ব্রণ দূর করার সাথে সাথে আপনার ত্বককে উজ্জ্বল করবে।

best foundation for acne

ব্রণ হলো এক ধরণের চর্মরোগ যার ফলে সৌন্দর্যের হানি হয়। ব্রণ নিয়ে সবার চিন্তার কোন শেষ থাকে না। ব্রণ যেমন সৌন্দর্য হানি করে তেমনি ভাবে এ থেকে সৃষ্ট দাগ ও গর্ত আরো বেশি সমস্যার সৃষ্টি করে। ব্রণ দূর করার জন্য বিভিন্ন রকম পন্থা অবলম্বন করে সবাই। কেউ সফল হয় আবার কেউ হয় না।

পড়ুনঃ খুব দ্রুত ব্রণ নিরাময়ে প্রাকৃতিক ১০ টি উপাদানের নাম যা সত্যিই কাজ করবে।

অ্যালোভেরা হলো এমন একটি উপাদান যা সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে অনেক কার্যকর। এতে রয়েছে ল্যাকটিন, মেনাস, পলিস্যাকারাইড যা ত্বকের জন্য অনেক উপকারী। ত্বকের স্বাস্থ্যে অ্যালোভেরা গুণাবলি মুখে বলে শেষ করা যাবে না।

ব্রণের নিরাময়ে  ও উজ্জল ত্বকের জন্য অ্যালোভেরার কিছু ব্যবহার নিম্নে আলোচনা করবো আশা করি আপনারা উপকৃত হবেন।

জেল তৈরির নিয়মঃ

প্রথমেই অ্যালোভেরা জেল কীভাবে পাতা থেকে বের করতে হয় তা জেনে নেই। খুব সহজ একটি পদ্ধতি। নিচে স্টেপ বাই স্টেপ দেয়া হলো।

  • একটি অ্যালোভেরা পাতা নিয়ে সেটার গোড়ার দিকে কিছু অংশ কেঁটে নিন।
  • তারপর যেখানে কাঁটা হয়েছে সেখানটা নিচের দিক করে ধরে রাখুন।
  • একটা হলদেটে রস বের হবে সেটা সম্পূর্ণ বের করে ফেলে দিন।
  • তারপর পাতাটা দুই দিকের কাটা ভরা অংশ কেঁটে ফেলুন।
  • এবার উপরের সবুজ অংশ কেঁটে ফেলে দিন।
  • এরপর দেখবেন সাদা জেলের মতো অংশ দেখা যাচ্ছে এটাই অ্যালোভেরা জেল।
  • এবার তা ফেসপ্যাক হিসেবে ব্যবহার করুন।

প্যাক তৈরির নিয়মঃ

এবার কীভাবে এই জেল ব্যবহার করা যায় তা সংক্ষিপ্ত আকারে আপনাদের মাঝে তুলে ধরলাম। নিচে কয়েকটি পদ্ধতি দেয়া হলো যেভাবে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করলে ব্রণ নিরাময় সম্ভব হবে।

অ্যালোভেরা জেলঃ

অ্যালোভেরা জেলের ব্যবহারে ত্বক অনেক সুন্দর হয়। সেই সাথে ত্বকে থাকা ব্রণ, ফুসকুড়ি, দূর হয়।

aloe vera gel

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • অ্যালোভেরা নিয়ে কেটে তার জেল বের করে নিন।
  • এবার জেল মুখে, গলায় অথবা ব্রণ আক্রান্ত স্থানে লাগান।
  • সারা রাত রেখে দিন।
  • সকালে পানি দিয়ে ভালো ভাবে ধুয়ে ফেলুন।
  • প্রতিদিন ব্যবহার করুন যতক্ষণ পর্যন্ত না ব্রণ ভালো হয়।

অ্যালোভেরা জেল ও লেবুর রসঃ

অ্যালোভেরা এমন একটি উপাদান যা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পরিপূর্ণ। আর লেবু ও ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারী। ফলে খুব দ্রুত ব্রণ শুকাতে সাহায্য করে। শুষ্ক ত্বকের জন্য এই প্যাকটি খুবই ভালো।

aloe vera juice and lemon juice

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • পরিমাণ মতো অ্যালোভেরা জেল নিয়ে নিন।
  • এবার এতে কয়েক ফোটা লেবুর রস মিলান।
  • ভালো করে মিশান।
  • এবার আক্রান্ত স্থানে বা পুরো মুখে লাগান।
  • ২০-৩০ মিনিট রাখুন।
  • ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

অ্যালোভেরা জেল ও মধুঃ

অ্যালোভেরা ও মধু দুটোই ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এরা ত্বকের তেল তেলে ভাব কমিয়ে ত্বকের মধ্যে একটা আলাদা উজ্জ্বলতা নিয়ে আসে। এই প্যাকটি ব্রণের জন্য অনেক ভালো। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এই প্যাকটি উপযুক্ত।

aloe vera gel and honey

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • অ্যালোভেরা জেল পরিমান মতো নিন।
  • এক চামচ মধু মিশিয়ে নিন।
  • ভালো করে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন।
  • এবার মুখে লাগান।
  • শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।
  • ধুয়ে ফেলুন।
  • প্রতিদিন ব্যবহার করতে পারেন ভালো ফলাফলের জন্য।

অ্যালোভেরা জেল, চিনি ও ভিটামিন-ইঃ

এই প্যাকটি ব্রণ নিরাময়ে অনেক ভালো। বিশ্বাস হচ্ছে না! নিজে ব্যবহার করে দেখুন তাহলেই বুঝবেন এর কার্যকারিতা। অ্যালোভেরা জেল ত্বকে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট জোগায়, চিনি স্ক্রাবের কাজ করে আর ভিটামিন-ই ত্বকের জন্য খুবই উপকারী।

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • অ্যালোভেরা জেল পরিমান মতো নিন।
  • এক চামচ চিনি নিন।
  • একটা ভিটামিন-ই ক্যাপসুল দিয়ে দিন।
  • তিনটা উপাদান মিশিয়ে নিন।
  • এবার ত্বকে লাগান ও একটু ম্যাসাজ করুন।
  • ১ ঘন্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন।
  • প্রতিদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারবেন।

অ্যালোভেরা জেল ও আপেল সিডার ভিনেগারঃ

আপেল সিডার ভিনেগারে ম্যালিক অ্যাসিড আছে যা ব্যাকটেরিয়া অপসারণ করে ত্বকের পিএইচ স্তর স্বাভাবিক রাখে। এই প্যাকটি মৃত চামরা পরিস্কার করে ফলে ত্বক পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকে।

Apple cider vinegar

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • অ্যালোভেরা জেল পরিমান মতো বা ১ চামচ নিয়ে নিন।
  • আপেল সিডার ভিনেগার হাফ চামচ নিন।
  • হাফ চামচ পানি দিন।
  • এবার ভালো করে উপাদান গুলো মিশিয়ে নিন।
  • ত্বকে লাগান ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।
  • সেনসিটিভ স্কিনে আপেল সিডার ভিনেগার না লাগানোই ভালো।

অ্যালোভেরা জেল ও গোলাপজলঃ

অ্যালোভেরা ও গোলাপজলের মিশ্রণ ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। বিশেষ করে সেন্সিটিভ ত্বকের জন্য এটা খুবই ভালো। এই প্যাকটির কোন ক্ষতিকারক দিক নেই বললেই চলে।

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • অ্যালোভেরা জেল পরিমান মতো নিন।
  • ১ চামচ গোলাপ জল দিন।
  • ভালো করে মিশিয়ে নিন।
  • মুখে লাগান অপেক্ষা করুন।
  • ১৫-২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।
  • প্রতিদিন ব্যবহার করতে পারবেন এই প্যাকটি।

অ্যালোভেরা ও শসাঃ

অ্যালোভেরা জেল ও শসা একসাথে টনিক হিসেবে কাজ করে। এই দুটি উপাদানই ত্বক পরিস্কার করতে সাহায্য করে। যাদের ত্বক অনেক বেশি সেন্সিটিভ তাদের জন্য এই প্যাকটি অনেক ভালো।

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • অ্যালোভেরা জেল নিয়ে নিন।
  • এর মধ্যে শসার রস ভালো করে মেশান।
  • মুখে লাগান।
  • ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।
  • প্রতিদিন ব্যবহার করা যাবে এই প্যাকটি।

অ্যালোভেরা জেল, মুলতানি মাটি ও গোলাপজলঃ

মুলতানি মাটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। অ্যালোভেরা ও মুলতানি মাটি একসাথে অনেক ভালো কাজ করে। এই দুটিতেই এমন কিছু উপাদান আছে যা ত্বকের জন্য খুব ভালো। এর মাধ্যমে ব্রণ দ্রুত নিরাময় সম্ভব।

Multani Mitti

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • ১ চামচ মুলতানি মাটি একটি বাটিতে নিয়ে নিন।
  • ১ চামচ অ্যালোভেটা জেল নিন।
  • পরিমাণ মতো গোলাপজল দিয়ে দিন।
  • এবার ভালো ভাবে মিশিয়ে প্যাক তৈরী করে নিন।
  • পুরো মুখে ও গলায় লাগান।
  • ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করুন।
  • পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

অ্যালোভেরা জেল ও হলুদঃ

অ্যালোভেরা জেল ও হলুদ ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এরা ত্বকের উজ্জ্বলতা খুব দ্রুত বাড়ায় ও ত্বক খুব মসৃণ করে তোলে। আমরা সবাই জানি হলুদ ত্বক উজ্জ্বল করার সাথে সাথে ত্বকের দাগ, ছোপ দূর করে। তাই এই প্যাকটি অল ইন ওয়ান একটি প্যাক।

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • হলুদ ১ চামচ একটি বাটিতে নিয়ে নিন।
  • এর সাথে এক চামচ অ্যালোভেরা জেল নিয়ে নিন।
  • সাথে একটু দুধ দিয়ে মিশিয়ে নিন।
  • এবার ভালো করে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন
  • মুখে, গলায় লাগান।
  • ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।
  • প্রতিদিন ব্যবহার করতে পারবেন।

পড়ুনঃ প্রাকৃতিক উপায়ে স্কিন টোন ফর্সা করার কার্যকর ঘরোয়া উপায়

অ্যালোভেরা জেল ও নিমপাতাঃ

অ্যালোভেরা জেল ও নিম পাতার প্যাক ত্বকের ময়লা দূর করে ত্বক কে ব্রণ ও ফুসকুড়ি মুক্ত করে। নিম পাতা ব্রণের জন্য খুব ভালো। সেই সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়িয়ে তুলবে এই প্যাকটি।

ব্যবহারের নিয়মঃ

  • নিম পাতা বেটে নিন।
  • এবার এতে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন।
  • ভালো মতো মিশান ও পেস্ট তৈরি করুন।
  • মুখে, গলায় লাগান।
  • ২০ মিনিট রাখুন ও ধুয়ে ফেলুন।

পরিশেষে,

অ্যালোভেরা ত্বকের সাথে সাথে স্বাস্থ্য রক্ষায় ও ভূমিকা রাখে। এটি সহজেই পাওয়া যায়। প্রাকৃতিক ভাবে প্রাপ্য এই উপাদান টি আমাদের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা রাখে। অবশ্যই আপনি চাইলেই এটি দিয়ে আপনার সৌন্দর্য চর্চা করতে পারবেন। এছাড়া এর জুস শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী।

আর অবশ্যই প্রাকৃতিক উপাদান নিয়মিত ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন। তাহলেই রেজাল্ট ভালো পাবেন এবং কোন রুপ ক্ষতি হবে না।

আপনাদের মতামত অথবা কোন প্রশ্ন থাকলে তা অবশ্যই কমেন্ট বক্সে লিখতে ভুলবেন না। আমরা যথাসম্ভব চেষ্টা করবো সমাধান দেয়ার জন্য। আশা করছি আমার কথাগুলো একটু হলেও আপনাকে সাহায্য করবে